গত কয়েকদিন ধরে খুবই রোদের প্রহর ছিল। কিন্তু সেইসঙ্গে আবহাওয়া দপ্তর থেকে খবর পাওয়া যাচ্ছিল বঙ্গোপসাগরে একটি নিম্নচাপের সৃষ্টি হচ্ছে। সেইসঙ্গে একটি কালবৈশাখী ঝড়েরও প্রকোপ তৈরি হচ্ছিল। কলকাতার আলিপুর আবহাওয়া দপ্তরের রিপোর্ট অনুযায়ী আজ অর্থাৎ ১৭ ই মার্চ ২০২৪ (রবিবার) পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণবঙ্গের প্রায় সমস্ত জেলাগুলিতেই হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

সেই সঙ্গে বলা হয়েছে দক্ষিণবঙ্গের কলিকাতা, হাওড়া, উত্তর ও দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা, মুর্শিদাবাদ, বীরভূম, পূর্ব ও পশ্চিম বর্ধমান, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, নদীয়া, পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর, হুগলি, ঝাড়গ্রাম ইত্যাদি জেলাগুলিতে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টি দেখা দিতে পারে।

সেই সঙ্গে আবহাওয়া দপ্তরের রিপোর্টে বলা হয়েছে দক্ষিণবঙ্গের এই জেলাগুলিতে ৫০ থেকে ৬০ কিলোমিটার প্রতি ঘন্টার গতিবেগে ঝেড়োবাতাস বইতে পারে। সেইসঙ্গে দক্ষিণবঙ্গের কয়েকটি জেলাতে ছোটখাটো শিলাবৃষ্টি হওয়ারও সম্ভাবনা রয়েছে, তবে হয়তো শিলাবৃষ্টি নাও হতে পারে। এমনটাই জানানো হয়েছে আবহাওয়া দপ্তর থেকে।

দক্ষিণবঙ্গে যাই হোক না কেন, উত্তরবঙ্গের জেলাগুলি যেমন দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কুচবিহার উত্তর দিনাজপুর দক্ষিণ দিনাজপুর আলিপুর দেওয়ার ও কালিম্পং ঝড় বৃষ্টির তেমন কোনো সম্ভাবনা নাই। এই জেলাগুলিতে রোদ্রউজ্জ্বল আবহাওয়া বিরাজ করবে। তবে আগামী দুই দিন উত্তরবঙ্গে বৃষ্টির কোন সম্ভাবনা নেই।

উত্তরবঙ্গে আগামী কয়েক দিনের ঝড় বৃষ্টির কোন সম্ভাবনা না থাকলেও দক্ষিণবঙ্গের প্রায় সমস্ত জেলাগুলিতেই আগামী দু থেকে তিন দিন বিক্ষিপ্তভাবে অর্থাৎ মাঝে মাঝে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

তাপমাত্রার কথা যদি বলা যায়, উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে বৃষ্টি না হওয়ার কারণে তাপমাত্রা যেরকম স্বাভাবিক থাকে ওই রকমই থাকবে। তবে দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে মেঘলা আকাশ থাকার কারণে স্বাভাবিক যে তাপমাত্রা রাত্রিবেলা থাকে তার থেকে দু-এক ডিগ্রী বেশি থাকতে পারে। তবে বৃষ্টি হওয়ার কারণে খুব একটা গরম অনুভব হবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *